বুধবার ৪ঠা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শায়েস্তাগঞ্জে অপরিকল্পিতভাবে সুতাং সেতুর মাটি কাটায় হুমকির মুখে ঋষি পরিবারগুলো!

মোঃ আব্দুর রকিব, হবিগঞ্জ থেকে:   বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১     57 ভিউ
শায়েস্তাগঞ্জে অপরিকল্পিতভাবে সুতাং সেতুর মাটি কাটায় হুমকির মুখে ঋষি পরিবারগুলো!

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার সুতাং ব্রীজের নির্মাণ কাজ পুরোদমে শুরু হয়েছে। সম্প্রতি পুরাতন ব্রীজ পুরোটাই ভেংগে ফেলা হয়েছে। এরই মধ্যে এক্সেভেটর দিয়ে মাটি কাটা চলছে। সুতাং ব্রীজ সংলগ্ন ঋষি সম্প্রদায়ের বেশ কয়েকটি পরিবার এখানে দীর্ঘবছর যাবত বসবাস করে আসছে। অপরিকল্পিত ভাবে মাটি কাটার ফলে হুমকিতে রয়েছে রবিদাস পরিবারের বসতবাড়িগুলো। এ অবস্থায় পরিবারের প্রতিটি সদস্যকে নিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঘরে বসবাস করতে হচ্ছে রবিদাশ পাড়ার সংখ্যালঘু পরিবারগুলোকে।

সরেজমিন গেলে জানা যায়, শতাধিক বছর ধরে সুতাং ব্রিজের উভয় পাশে বসবাস করে আসছে তিনটি রবিদাস পরিবার। এরমধ্যে ব্রিজের পশ্চিম দিকে অবস্থিত একটি বসতঘরে একই পরিবারের ৭ জন সদস্য বসবাস করে আসছে। সোমবার ব্রিজের নির্মাণ কাজের প্রয়োজনে এক্সাভেটর দিয়ে অপরিকল্পিতভাবে মাটি কাটা শুরু করে। এ অবস্থায় পরিবারটি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঘরে বসবাস করছে। ধারণা করা হচ্ছে, যেকোন সময় তাদের বসতঘরটি ভেঙ্গে যেতে পারে।

ঋষি পরিবারের সদস্য জানান, ইতোমধ্যে মাটি কেটে তাদের লেট্রিন ও রান্না করার স্থান বিলীন করে দেওয়া হয়েছে। বসতঘরটিও ভেঙ্গে যাওয়ার উপক্রম। তারা ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছেন। এর আগেও একটি প্রভাবশালী মহল ঋষি পরিবারকে তাড়িয়ে দেয়ার জন্য দীর্ঘদিন পায়তারা করে তাদের ক্ষতি করেছে। ইতিমধ্যেই এই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে সুতাং ব্রীজের পুরাতন রড নিলামে না তুলে নিজেই বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিনহাজুল ইসলাম ও উপজেলা মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি মোঃ আব্দুর রকিব ও সাধারন সম্পাদক কামরুজ্জামান আল রিয়াদ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন।

এ ব্যাপারে নূরপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মুখলিছ মিয়ার বলেন ব্রিজের পাশে শত বছরের বসবাস তিনটি রবিদাস পরিবারের। অপরিকল্পিতভাবে মাটি কাটায় ব্রিজের পশ্চিম দিকের রবিদাস পরিবারগুলি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছে। এ তথ্য জানার পর আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে এর প্রতিবাদ করেছি। তিনি বলেন, ব্রিজ নির্মাণ হোক আমরা সবাই চাই। তবে পরিকল্পনা মাফিক কাজ করলে এ অবস্থা সৃষ্টি হওয়ার কথা নয়। মানবাধিকার লঙ্ঘন করে তাদেরকে উচ্ছেদ করার পায়তারা চলছে, এটি হতে দেয়া যাবে না।

এ বিষয়ে ব্রিজের ঠিকাদার গোলাম ফারুক জানান, ব্রিজের নির্মাণ কাজের জন্য নিয়ম মেনে মাটি কাটা হচ্ছে। এখানে কোন প্রকারের অনিয়ম করা হয়নি। আমি কারো ক্ষতি করতে চাই না।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৯:০৯ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com