সোমবার ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মুক্তিযোদ্ধার গেজেট থেকে বাদ পড়লেন শায়েস্তাগঞ্জের এক সিপাহী 

বৃহস্পতিবার, ১১ জুন ২০২০     52 ভিউ
মুক্তিযোদ্ধার গেজেট থেকে বাদ পড়লেন শায়েস্তাগঞ্জের এক সিপাহী 

মোঃ আব্দুর রকিব, হবিগঞ্জ থেকে : হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নুরপুর ইউনিয়নের  এক (অবঃ)বিজিবির সিপাহীকে মুক্তিযোদ্ধার গেজেটে বাতিল করা হয়েছে। তিনি শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নুরপুর ইউনিয়নের মৃত সোহরাব আলীর ছেলে। গত রবিবার এক প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে সারাদেশে ১ হাজার ১৮১ জনের মুক্তিযোদ্ধার সনদ বাতিল করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

অনুসন্ধানে জানা যায়, গেজেট বাতিল হওয়া ব্যক্তিরা মুক্তিযুদ্ধের পর বিমান বাহিনী ও বিজিবিতে যোগদানকালে নিজেদের মুক্তিযোদ্ধা পরিচয় দিয়ে গেজেটভুক্ত হয়েছিলেন । কিন্তু মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কাছে তাদের গেজেট ভুক্তির কোনো কাগজপত্র ছিল না। পরে বাহিনীগুলোর কাছে মুক্তিযুদ্ধের পর গেজেটভুক্ত হওয়া মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা চাওয়া হয়েছিল। এর মধ্যে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার আবু তাহেরর নামও ছিল ।

১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বরের পর তৎকালীন বিডিআর বর্তমানে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ’এ (বিজিবি) যোগদানকারীদের একজন তিনি । তার মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহনের প্রমান চাইলে তিনি তা উপস্থাপন করতে না পারায় মুক্তিযুদ্ধাদের তালিকার গেজেট থেকে তিনি বাদ পড়েন।বাতিল হওয়া গেজেট নাম্বার ৭৯০।

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন-২০০২ (২০০২ সনের ৮নং আইন) এর ৭(ঝ) ধারা অনুযায়ী জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকার) সুপারিশের প্রেক্ষিতে এর তালিকা ৪১ এর ৫নং ক্রমিকে প্রদত্ত ক্ষমতা বলে জামুকার ৬৬তম সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক স্বাধীনতা যুদ্ধের (১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ সালের) পর বাহিনীতে যোগদানকারী মুক্তিযোদ্ধাদের গেজেট বাতিল করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আবু তাহের জানান, ১৯৭৫ সালের ৮ই ডিসেম্বর বিডিআরের  সিপাহী পদে যোগদান করেন। ১৯৯৬ সালের ৩ জুলাই তিনি অবসরে আসেন। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করার এতদিন পরে কেন উনাকে বাতিল করা হল তিনি বুঝে উঠতে পারছেন না। তিনি ব্যক্তি জীবনে দুই মেয়ের জনক। দুই মেয়েই জামাতাদের সাথে প্রবাসে আছে। তিনি অবসরে আসার পর থেকে ব্যবসা বানিজ্য করেছেন। তালিকাভুক্ত হতে আবারও আবেদন করবেন বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড সংসদের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার গৌর প্রসাদ রায় বলেন বিজিবির (অবঃ) সিপাহী আবু তাহের মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন মর্মে আমরা মন্ত্রনালয়ের চিঠি পেয়েছি।

এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুমী আক্তার বলেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা দপ্তরের কাজ এখনো হবিগঞ্জ সদর উপজেলার সাথেই আছে। তাই এ বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারছেন না।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১:১৩ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১১ জুন ২০২০

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com