শুক্রবার ১৮ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আজ ভারতের কলকাতায় বিয়ের অনুষ্ঠান

বিয়ে করে ঘর বাঁধছেন লিঙ্গান্তরিত দুই নারী-পুরুষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:   সোমবার, ০৫ আগস্ট ২০১৯ 134 ভিউ
বিয়ে করে ঘর বাঁধছেন লিঙ্গান্তরিত দুই নারী-পুরুষ

ছবি -ইন্টারনেট

আজ সোমবার (৫ আগস্ট) আনুষ্টানিক বিয়ে হচ্ছে তিস্তা ও দীপন জুটির। বিয়ে হবে শাস্ত্রমতেই। আগামী ৭ আগস্ট তাঁদের বউভাতের অনুষ্ঠান। বিয়েতে আত্মীয় স্বজন যোগ দেয়ার কথা রয়েছে। বিয়ে তো বিয়েই এ নিয়ে এতো কথা বলার কি?

হ্যা, সুশান্ত ও দীপান্বিতা জন্ম নিয়েছিল নারী এবং পুরুষ হয়ে। তবে যার হবার কথা নারী তিনি হয়েছিলেন পুরুষ, আর যার পুরুষ হবার কথা ছিলো প্রকৃতির নিয়মে তিনি জন্ম নেন নারী হয়ে। কিন্তু এক সময় তারা বুঝতে পারেন জন্মসূত্রে পাওয়া পুরুষ-নারীর এই শরীর তাঁদের নয়।

অবশেষে বছর ১৫ আগে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সুশান্ত হয়ে যান এখকার তিস্তা দাস। সমাজে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন একজন কবি, বুটিকশিল্পী আর সমাজকর্মী হিসেবে। থাকেন কলকাতার আগরপাড়ায়।  তাঁর বয়স এখন চল্লিশের কাছাকাছি। অন্যদিকে, যার সাথে তাঁর বিয়ে হচ্ছে সেই দীপন চক্রবর্তীও জন্মেছিলেন নারী হয়ে। নাম ছিল দীপান্বিতা। কিন্তু তাঁর শরীরে ছিল পুরুষের উপসর্গ। তাই তিনিও বছর তিনেক আগে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে পুরুষ হয়ে নাম রাখেন দীপন চক্রবর্তী।  তাঁর বয়সও চল্লিশের কাছাকাছি।

তিস্তা এবং দীপন দুইটি ভিন্ন জায়গায় বেড়ে উঠলেও তাঁদের জীবনের গল্পটা একই রকম।  আর এই গল্পের মিলই মিলিয়ে দিয়েছে তাঁদের জীবনকে।  অবশেষে  দীপন থাকেন এখন কলকাতার গড়িয়ায় একটি ভাড়া বাসায়। কলকাতার একটি ওষুধ কোম্পানিতে কাজ করেন তিনি।

তিস্তা দাস আর দীপন চক্রবর্তীর প্রথম দেখা হয় বছর তিনেক আগে লিঙ্গান্তরসংক্রান্ত একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে। সেখানেই তিস্তার সঙ্গে পরিচয় হয় দীপনের। দুজনেই লিঙ্গান্তরিত নারী-পুরুষ। প্রথম দেখাতেই দীপনের ভালো লেগে যায় তিস্তাকে। বয়সও দুজনের কাছাকাছি। কিন্তু কেউ কাউকে নিজেদের মনের কথা বলতে পারছিলেন না। অবশেষে তিস্তার এক বান্ধবীর ভরসায় মনের কথাটি আগে বলেন দীপন। তিস্তার মনেও যে একই অনুভূতি ছিল। তাই দুজন ঘর বাধাছেন আজ।বিয়েতে দীপনের মা বাবা অংশ না নিলেও আত্মীয় স্বজন যোগ দিবেন।

২০১৪ সালে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট রূপান্তরকামীদের মৌলিক অধিকারকে স্বীকৃতি দিয়েছেন। যদিও পশ্চিমবঙ্গে এই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে হতে চলেছে রূপান্তরকামী এক জুটির। এর আগে কয়েক মাস আগেও ভারতের কেরালা রাজ্যে রূপান্তরিত আরেক জুটির বিয়ে হয়।

Facebook Comments
advertisement

Posted ৩:৪৭ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৫ আগস্ট ২০১৯

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com