শনিবার ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শায়েস্তাগঞ্জে মাইকিং করে পল্লী বিদ্যুতের বিল আদায় 

বুধবার, ২০ মে ২০২০     89 ভিউ
শায়েস্তাগঞ্জে মাইকিং করে পল্লী বিদ্যুতের বিল আদায় 

মোঃ আব্দুর রকিব, হবিগঞ্জ থেকে : বিশ্বময় প্রভাব বিস্তারকারি মহামারি করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছে বিশ্বনেতারা। ইতোমধ্যে বাংলাদেশেও করোনার প্রকোপ ক্রমশ তীব্র আকার ধারণ করেছে। করোনা প্রাদুর্ভাবের সময়ে অতি কষ্টে জীবন যাপন করেছে দেশের খেটে-খাওয়া দিনমজুর, অসহায় ও দুঃস্থরা। যেখানে জীবন ধারণ নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে মানুষ এই মুহুর্তে সাধারণ মানুষের মাথায় বিদ্যুৎ বিলের বোঝা, এযেন মরার উপরে খারার ঘা।

গত সোমবার বিকালে  বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করার জন্য  শায়েস্তাগঞ্জে মাইকিং করিয়েছে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি। বিষয়টি নিয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলাব্যাপী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সাধারণ মানুষের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। গতকাল (১৯ মে) শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার সুতাং বাজারে দেখা যায় পল্লী বিদ্যুৎ এর একদল লোক বুথ স্থাপন করে বিল গ্রহন করছে কোন প্রকার স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুতের প্লান্ট ম্যানেজার নুরে আলম জানান, তারা সব জায়গাতেই বিল গ্রহন করছেন, গ্রাহকদের সুবিধার কথা চিন্তা করে তারা বিল নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ হিসেবে বলেন, ৩-৪ মাসের বিল একত্রে দিতে  গ্রাহকদের অসুবিধা হতে পারে। এদিকে মাইকিং শুনে বিল দিতে আসা অনেকেই লাইন কেটে দেয়ার আতঙ্কে বিল দিতে এসেছেন বলে জানিয়েছেন।

বিল দিতে আসা গ্রাহকরা  কোন সামাজিক দুরত্ব, না মানায়  করোনার ঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি বিবেচনায় ফেব্রুয়ারি-মার্চ-এপ্রিল-২০২০ মাসের বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব ফি (মাশুল) মওকুফ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছিল সরকার এবং করোনার সংক্রমণ থাকাকালীন সময়ে বিদ্যুৎ বিল জমা না নেয়ার জন্য ঘোষণা দেয়া হয়েছিল।কিন্তু সরকারের সিদ্ধান্তকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে বিদ্যুৎ বিল জমা নিচ্ছে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পল্লী বিদুৎ সমিতির  জেনারেল ম্যানেজার মোতাহের হোসেন বলেন, আমরা বিল দেয়ার জন্য কাউকেই জোর করছি না, এবং বিল না দিলে কারো সংযোগ কাটাও হবে না। ব্যাংকগুলো বিল গ্রহন না করার কারণে আমরা যথেষ্ট পরিমাণ সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে কোনরকম বিলম্ব ফি ছাড়াই বুথ বসিয়ে বিল গ্রহন করছি।

সরকার থেকে এই চলমান সংকটে  বিল গ্রহন নিষেধ ছিল, এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, পিডিবির অনেক টাকা আমাদের কাছে পাওনা রয়েছে,  সেই পাওনা বিল দেয়ার জন্যই সরকার থেকে আবার বিল গ্রহন করার জন্যও বলা হয়েছে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১১:০৫ অপরাহ্ণ | বুধবার, ২০ মে ২০২০

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com