মঙ্গলবার ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

শায়েস্তাগঞ্জে বন বিভাগের কার্যক্রম চলছে জরাজীর্ণ ভবনে 

শনিবার, ১৩ জুন ২০২০ 39 ভিউ
শায়েস্তাগঞ্জে বন বিভাগের কার্যক্রম চলছে জরাজীর্ণ ভবনে 

মোঃ আব্দুর রকিব, হবিগঞ্জ থেকে ॥ হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা বন বিভাগের দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিত্যক্ত ও জরাজীর্ণ ভবনেই চলছে। কর্মকর্তাদের আবাসিক ভবনগুলোর অবস্থাও একই। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এসব ভবনে বসবাস করছেন কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। ১৯৬৫ সালে হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ পৌর এলাকার পূর্ব লেঞ্জাপাড়া গ্রামে এক একর জমির উপর নির্মাণ করা হয় বন বিভাগের এ অফিস। দীর্ঘদিন ধরে এ অফিসটির কার্যক্রম ঝুকিপূর্ণ ভবনেই চলছে।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অফিসের সামনে নেই কোন প্রতিরক্ষার সীমানা প্রাচীর। অফিসটি প্রতিষ্ঠার পর তেমন কোন সংস্কার না হওয়ায় এ ভবনগুলো জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, অতি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় তিনটি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছে, তবুও নতুন ভবন করা হচ্ছেনা। এ ছাড়াও এখানে নেই নিরাপত্তা প্রাচীর, নৈশ্য প্রহরী, কম্পিউটার এবং নেই কোন সিসি ক্যামেরাও। এদিকে অফিস ভেঙ্গে পড়ার ঝুঁকি অন্যদিকে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন অফিসের কর্মকর্তারা।

রেঞ্জ অফিস সুত্রে জানা যায়, এ অফিসের রেঞ্জ কর্মকর্তার দায়িত্বে বাহুবলের পুটিজুরী বনবিট। শায়েস্তাগঞ্জ বনজদ্রব্য পরীক্ষণ ফাঁড়ি দেখাশোনা করছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

শায়েস্তাগঞ্জ রেঞ্জ অফিসের পার্শ্বের বাসিন্দা পুর্ব লেঞ্জাপাড়ার প্রবীণ মুরব্বী হাজী খোরশেদ মিয়া বলেন, সরকারী একটি অফিস ঝুঁকিপূর্ণ থাকবে কেন। বহু দিন ধরেই ভাংগাচুরা অফিসেই কাজ করছে কর্মকর্তাও কর্মচারীরা। যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা গটতে পারে।

সংশিষ্ট ওর্য়াড কাউন্সিলর মো, নওয়াব আলী জানান, ঠিক কি কারণে রেঞ্জ অফিসটি অবহেলিত আমি বুঝে উঠতে পারছিনা, ঝুঁকিপূর্ণ ভবনগুলো ভেংগে সীমানা প্রাচীরসহ একটি সুন্দর রেঞ্জ অফিস করার জন্য জোড় দাবি জানাচ্ছি।

শায়েস্তাগঞ্জ বন বিভাগের রেঞ্জ অফিসার আব্দুল খালেক বলেন, আমাদের এ অফিসের সবগুলো ভবনই ঝুঁকিপূর্র্ণ। সবগুলো ভবনই পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হয়েছে। পরিত্যক্ত ঘোষনাকৃত ভবন গুলোতেই আমাদের অফিসের কার্যক্রম চলছে। আবাসিক ভবন গুলোর অবস্থাও একই ।

হবিগঞ্জ বন বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক মোঃ মারুফ হোসেন জানান, এই রেঞ্জ অফিসটি পূণনির্মানের পরিকল্পনায় আছে।  আগামী বছরের প্রথম দিকে হয়ত কাজ শুরু হবে।

এ বিষয়ে সিলেটের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) এস এম সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আমরা এ বিষয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ও নতুনকরে ভবন নির্মাণ করার জন্য মন্ত্রনালয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিয়েছি। আশা করছি কাজ শুরু করা হবে খুব শীঘ্রই।

Facebook Comments
advertisement

Posted ৯:২০ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১৩ জুন ২০২০

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com