বৃহস্পতিবার ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বেশী দামে লবণ বিক্রয় করলে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে জানানোর আহবান বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার

বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯     177 ভিউ
বেশী দামে লবণ বিক্রয় করলে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে জানানোর আহবান বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার
মখলিছ মিয়া, বানিয়াচং থেকে : বানিয়াচং উপজেলার বড়বাজার, নতুন বাজারসহ কয়েকটি বাজারে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর)  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মামুন খন্দকার এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মতিউর রহমান খান এর নেতৃত্বে বাজার মনিটরিং, দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতি, লবণ নিয়ে সৃষ্ট গুজব এর উপর মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়।
এ সময় সবাইকে গুজবে কান না দিয়ে স্বাভাবিক নিয়মে ব্যবসা পরিচালনার জন্য সতর্ক করে দেয়া হয়। বাজারে লবণের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে এবং নির্ধারিত মূল্যেই তা কেনা বেচা করতে ক্রেতা বিক্রেতাকে নির্দেশ দেয়া হয়।
পরবর্তীতে সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ অনুসারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। ভিন্ন ভিন্ন ধারায় ৭ জনকে ৩২ হাজার ৫শ টাকা অর্থদন্ড আদায় করা হয়। আদালত পরিচালনা কালে আদালতের কাজে বাধা প্রদান করায় দন্ডবিধি, ১৮৬০ অনুসারে রাষ্ট্রীয় কাজে বাধা দেয়ায় আবুল বাশার অনিক (২৩) ও মোর্শেদ মিয়া (১৯) কে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। মোটরযান আইনে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ৪জন মোটরসাইকেল চালকের বিরুদ্ধে মামলা ও জরিমানা আদায় করা হয়েছে। অভিযানে রেজিস্ট্রেশনবিহীন মোটরসাইকেল,ইজিবাইক,ব্যাটারিচালিত ৭টি অটোরিক্সা আটক করা হয়।  ড্রাইভিং লাইসেন্স ও হেলমেট না থাকায় ৪জন মোটরসাইকেল আরোহীকে জরিমানা করা হয়। এ সময় বিভিন্ন যানবাহন থামিয়ে সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ এর ৭৫ ধারায় মোটরসাইকেল চালক আবুল খায়ের কে ৫ হাজার টাকা, দীপু বণিককে ৫ হাজার টাকা,মোক্তার হোসেনকে ৫ হাজার টাকা ও পারভেজ মিয়াকে ১হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
অন্যদিকে ভোক্তা অধিকার আইন ২০০৯ এর ৩৯ ও ৫২ ধারায় মেসার্স সহিবুর স্টোরকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালত। পাশাপাশি বেপরোয়া অটোরিক্সা চালকদের বিরুদ্ধেও অভিযান চালানো হয়। বাজারের কয়েকটি পয়েন্ট থেকে ৭ জন অপ্রাপ্ত বয়স্ক অটোরিক্সা চালকদের তাদের গাড়িসহ আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।
এ ব্যাপারে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মামুন খন্দকার জানান, বাজারে খাবার লবনের কোন ঘাটতি নাই। আমি বাজারের ব্যাবসায়ীদের দোকানে দোকানে গিয়ে কথা বলে এসেছি। ব্যাবসায়ীগন আমাকে আশ্বস্থ করেছেন লবনের মূল্যবৃদ্ধি ঘটবে না। তাই সাধারন মানুষজনকে আতংকিত না হওয়ার জন্য আমরা সচেতনতা বৃদ্ধি করার চেষ্টা করছি।
সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মতিউর রহমান খান বলেন,– সড়ক নিরপাদ রাখতে ও সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর করতে মোবাইল কোর্ট কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।
Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com