শুক্রবার ১৮ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিশ্বম্ভরপুরের মিছাখালী রাবার ড্যামের রাবার হুমকির মুখে

রবিবার, ১৪ জুন ২০২০ 22 ভিউ
বিশ্বম্ভরপুরের মিছাখালী রাবার ড্যামের রাবার হুমকির মুখে

স্বপন কুমার বর্মন, বিশ্বম্ভরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি : দেশের দ্বিতীয় বৃহৎ রাবার ড্যাম, মিছা খালি রাবার ড্যামের রাবারের ভেতরের পানি সম্পূর্ণভাবে  নিষ্কাশন না করায় কোটি কোটি টাকার সম্পদ বিনষ্ট হওয়ার উপক্রম দেখা দিয়েছে।
রাবারের, প্রত্যেকটা স্পেনের রাবারেরর  উভয় সাইড পানির উপরে ভেসে আছে।

মধ্যখানে ৩/৪ ফুট পানি প্রবাহিত হওয়ায়  স্টিলের মালবাহী নৌকা এর উপর দিয়ে  প্রতিনিয়ত  যাতায়াতের ফলে  ফ্যানের আঘাতে রাবার কেটে বিনষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।এই মুহূর্তে রাবারের সম্পূর্ণ পানি নিষ্কাশন না করলে রাবার গুলো ক্ষতবিক্ষত হয়ে রাবার অকেজো হয়ে যাবে। কৃষকের কোটি কোটি টাকার স্বপ্নের রাবার ড্যাম বিলিন হয়েযাবে।

এ ব্যাপারে রাবার ড্যাম পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির মৃধা জানান, রাবারের ভেতরে পানি থাকায় উভয় সাইড ফুলে উঠেছে। সম্পূর্ণ পানি নিষ্কাশন করলে দেড় ড্রাম ডিজেল তেলসহ অন্যান্য খরচাদী বাবদ প্রায় ৩০ হাজার টাকা খরচ হবে। আমি এত টাকা পাবো কোথায়?  ২০১৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত রাবার ড্যাম পরিচালনা করতে গিয়ে বিদ্যুৎ বিল, লেবার ও  আনুষঙ্গিক খরচ সহ প্রায় ৪ লক্ষাধিক টাকা আমার হাত থেকে খরচ করেছি। এ পর্যন্ত সরকারিভাবে রাবার ড্যাম পরিচালনার জন্য কোন বরাদ্দ প্রদান করা হয় নাই।তিনি প্রস্তাব করেন, যেহেতু বর্ষাকাল নৌকা চলাচল বন্ধ করা সম্ভব হবেনা, তাই রাবারের উপর দিয়ে  যাতায়াতকারী  ইঞ্জিন চালিত  সকল প্রকার  নৌকা  বন্ধ করে  রাবার অতিক্রম করা, এবং রাবার ড্যামের ব্রীজের উপর দিয়ে যাতায়াত কারী সকল পরিবহন থেকে টুল টেক্স আদায়ের জন্য একজন কেয়ারটেকার নিয়োগ করা।

ব্রিজের উপর দিয়ে  যাতায়াতকারী  সকল পরিবহনের কাছ থেকে  টুল টেক্স  আদায়  ও আঙ্গারুলি হাওরপাড় এলাকার সকল কৃষকদের কাছ থেকে কেয়ার প্রতি  ১০/২০ টাকা করে রাবার ড্যামের চাঁদা  নির্ধারণ করে সরকারী ভাবে প্রকাশ্যে  স্থানে তালিকা টানিয়ে রাখা একান্ত প্রয়োজন।  তখনই  রাবার ড্যাম  সঠিকভাবে পরিচালিত হবে বলে আমার বিশ্বাস। রাবার ড্যামের সুবিধাভোগী ও কৃষকদের কাছ থেকে এই ব্যয় ভার নির্বাহের জন্য কর্তৃপক্ষ লিখিত কোন নির্দেশনা জারি না করে শুধু মৌখিকভাবেই  বলছেন।  তাই   এলাকা থেকে কোনো টাকা আদায় করা সম্ভব হচ্ছে না।

এ ব্যাপারে বিএডিসি সুনামগঞ্জ জোন সহকারী প্রকৌশলী হোসাইন মোহাম্মদ খালেদুজ্জামান জানান, রাবার ড্যামের পরিচালনা কমিটি রয়েছে। তারা এলাকার সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে পরিচালনার খরচ আদায় করবেন। রাবার ড্যাম পরিচালনার জন্য সরকারিভাবে আলাদা কোন বরাদ্দ প্রদানের কোন নিয়ম নেই। তাই স্থানীয়ভাবেই এর ব্যয় ভার নির্বাহ করতে হবে।

Facebook Comments
advertisement

Posted ১০:৫০ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৪ জুন ২০২০

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com