শুক্রবার ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিশ্বনাথে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর  সংখ্যা বাড়ছে, উপজেলাজুড়ে আতঙ্ক !

জাহাঙ্গীর আলম খায়ের, বিশ্বনাথ থেকে :   বুধবার, ০৭ আগস্ট ২০১৯     130 ভিউ
বিশ্বনাথে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর  সংখ্যা বাড়ছে, উপজেলাজুড়ে আতঙ্ক !
সিলেটের বিশ্বনাথে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। এ পর্যন্ত ৩জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়াগেছে। এতে একদিকে যেমন রোগেীর সংখ্যা বাড়ছে, অন্যদিকে বিশ্বনাথবাসীর মধ্যেও ডেঙ্গু আতঙ্ক বাড়ছে। তবে, ৩জন রোগীর মধ্যে দু’জন সুস্থ্য হয়েছেন। আর রাজ চন্দ (১১) নামের অপরজন এক ছাত্র ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। স্থানীয় চন্দ্রগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনীতে পড়ূয়া রাজ চন্দ বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চি ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের রঞ্জিত চন্দ রানার ছেলে। গত ১আগষ্ট বৃহস্পতিবার থেকে সে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এরআগে গত ২৭ জুলাই রোববার প্রচন্ড জ্বরে আক্রান্ত হলে প্রথমে তাকে তার ভাই রণি চন্দ সিলেটের গ্রামীন নামের একটি প্রাাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করেন। পরে জ্বর নিয়ন্ত্রণে না আসায় ডেঙ্গু রোগের জন্য চিকিৎকরা অন্যান্য পরীক্ষার সঙ্গে ডেঙ্গু রোগের পরীক্ষা দেন। আর এতে তার ডেঙ্গু ধরা পড়ে। পরবর্তিতে সেখান থেকে তাকে চিকিৎসকরা তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজ চন্দের বড়ভাই পুলিশ কনস্টেবল রণি চন্দ। তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, তার ভাইয়ের প্রথমে প্রচন্ড জ্বর ছিল। পরে ডাক্তারী পরীক্ষার পর ডেঙ্গু জ্বরধরা পড়ে।
এদিকে রাজ চন্দ ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ার আগে ঢাকা থেকে রায়হান ইসলাম (২০) নামের এক কলেজছাত্র চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। রায়হান সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা কৃষি অফিসের মেকানিক তোফাজ্জুল হোসেনের বড়ছেলে। গত ২৫ জুলাই জ্বর নিয়ে ঢাকার বনানী থেকে বিশ্বনাথে বাবার বাসায় বেড়াতে আসেন। ওইদিনই তাকে সিলেট রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে ডাক্তারি পরীক্ষায় তার ডেঙ্গু ধরা পড়ে। পরে টানা ৫দিন চিকিৎসা নেওয়ার পর ১আগষ্ট সুস্থ্য হয়ে সে আবার ঢাকা ফিরেগেছে বলে তার বাবা মেকানিক তোফাজ্জল হোসেন জানিয়েছেন।
অন্যদিকে সফিকুল ইসলাম (৩০) আরও এক যুবক ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে ঢাকা থেকে বিশ্বনাথে এসেছিলেন। পরে ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে তিনিও সুস্থ্য হয়ে ঢাকায় ফিরে গেছেন বলে জানাগেছে।
এ প্রসঙ্গে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (টিএইচও) আব্দুর রহমান মূসা এ প্রতিবেদককে বলেন, ৩জনের মধ্যে দু’জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। আর এতে আতস্কিত না হয়ে ডেঙ্গু রোগ সম্পর্কে জানতে হবে এবং পরিস্কার পরিচ্চন্নতার পাশাপাশি জনসেচতনা বাড়াতে হবে বলে জানান তিনি।
Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৯:০১ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৭ আগস্ট ২০১৯

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com