রবিবার ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে পুলিশের  ৪৮ রাউন্ড শর্টগান ও ৭ রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ

বানিয়াচঙ্গে জায়গার দখল নেয়াকে কেন্দ্র করে দু’গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত অর্ধ শতাধিক

মখলিছ মিয়া, বানিয়াচং থেকে :   শুক্রবার, ১৬ আগস্ট ২০১৯     208 ভিউ
বানিয়াচঙ্গে জায়গার দখল নেয়াকে কেন্দ্র করে দু’গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত অর্ধ শতাধিক

ফাইল ছবি

বানিয়াচঙ্গে জায়গার দখল নেয়াকে কেন্দ্র করে দু’গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক। গুরুতর আহত অবস্থায় টেটাবিদ্ধ ৪ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশের শর্টগান ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ। ঘটনাটি ঘটেছে ১৫ আগষ্ট বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় ৬নং কাগাপাশা ইউনিয়নের বাগহাতা গ্রামে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কাগাপাশা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান এরশাদ আলীর চাচাতো ভাই লিয়াকত আলী আনন্দ বাজারের সন্নিকটে কিছু জায়গা ক্রয় করে মোকাম হাটির মৃত সুরুজ এর ছেলে এশাদ আলীর কাছ থেকে। গতকাল সকালে ক্রয়কৃত জায়গাটি দখল নিতে যায় লিয়াকত আলীগংরা। এসময় সাবেক চেয়ারম্যান মোতালিফ মিয়ার পক্ষের আলতাব আলী ক্রয়কৃত ভূমি দখল নিতে বাঁধা দেয়। আলতাব আলী কারন হিসেবে জানায় ওই জমি নিয়ে আদালতে মামলা রয়েছে। মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত এ জায়গা লিয়াকত আলীকে দখল নিতে দেয়া হবে না। এ নিয়ে লিয়াকত আলী এবং আলতাব আলীগংদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্য্যায়ে সংঘর্ষের রূপ নেয়। উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রায় ৪ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ রাশেদ মোবারক এর নেতৃত্বে বিপূল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এসময় পুলিশ সংঘর্ষ থামাতে ৪৮ রাউন্ড শর্টগান ও ৭ রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ করেছে। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশের এসআই আমিনুল হক চৌধুরী, এ,এসআই সামছুউদ্দিন, কনঃ নুরু, মোতালেব, কবির এবং আরিফ আহত হয়েছে।

এদিকে গুরুতর টেটাবিদ্ধ অবস্থায় উভয়গ্রামের মরম আলী (২৭), আব্দুল বাছির(৪২), মোস্তাহার (১৯) এবং আজমান(৩২)কে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। অন্য আহত জাকির মিয়া, রবিউল, আলামিন, ইব্রাহিম, মনিরসহ অন্তত ৪০জন হবিগঞ্জ আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বেশ কয়েকজন আটক করেছে।

এ বিষয়ে অফিসার ইনচার্জ রাশেদ মোবারক এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সংঘর্ষের খবর পাওয়া মাত্রই বিপূল সংখ্যক পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছায় ভয়াবহ রক্তপাত থেকে গ্রামবাসী রক্ষা পেয়েছে। এ সংঘর্ষের সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে বলেও তিনি এ প্রতিনিধিকে জানান।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ১৬ আগস্ট ২০১৯

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com