শুক্রবার ১৮ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পাখিকে আঘাত করলেই আইনী ব্যবস্থা ॥ পাখির অভয়াশ্রম গড়ে তুললেন ওসি রাশেদ মোবারক

পাখির শব্দে মুখর বানিয়াচং থানা প্রাঙ্গণ

মখলিছ মিয়া, বানিয়াচং থেকে :-   সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯ 231 ভিউ
পাখির শব্দে মুখর বানিয়াচং থানা প্রাঙ্গণ

পৃথিবীর মহাগ্রাম বানিয়াচং ইতিহাস ঐতিহ্যের চারণ ভূমি। যে কেউ এই মহাগ্রামে আসলে প্রথমেই চোখে পড়বে বানিয়াচংয়ের প্রবেশদ্বার বানিয়াচং থানার গাছে গাছে হাজার হাজার পাখির কিচিরমিচির শব্দ।

হবিগঞ্জ জেলায় পাখির অভয়াশ্রম একেবারেই চোখে পড়ে না। সেখানে ব্যতিক্রম বানিয়াচং থানা। আর এ ব্যতিক্রম কাজটিই করেছেন বানিয়াচং থানার ওসি রাশেদ মোবারক। শত কষ্টের বিনিময়ে পাখি যেন কোন প্রকার কষ্ট না পায় এজন্য বানিয়াচং থানার সকল কর্মকর্তাকে বিনয়ের সহিত পাখির পরিচর্যা করার নির্দেশ দিয়েছেন। তারাও কাজের ফাঁকে পাখিদের দেখভাল করছেন।

প্রাকৃতিক কিংবা অন্য কারনে কোন পাখির বাচ্চা বাসা থেকে মাটিতে পড়ে গেলে তাৎক্ষনিক বাচ্চাকে বাসায় পৌছে দেয়া হচ্ছে। আপন মমতায় ওসি রাশেদ মোবারক পাখিদের দেখভালসহ পাখিগুলোর পরিচর্যা করে যাচ্ছেন। এলাকাবাসীও ওসি রাশেদ মোবারক এর পাখি প্রীতিকে স্বাগত জানিয়েছেন। পাখিগুলোও থানা চত্ত্বরে সুন্দর পরিবেশ পেয়ে যেন মহা-আনন্দে নেচে বেড়াচ্ছে।

এখানে আশ্রয় নেয়া হরেক রকম পাখির মধ্যে রয়েছে লাল বক, সাদা বক, সামখইল, রাতচোরা, সারস, মাছরাঙা, পানি কাউর, বিভিন্ন প্রজতির ঘুঘুসহ নাম না জানা নানান রঙের প্রায় সহস্রাধিক পাখি। থানা চত্ত্বর ছাড়িয়ে গ্রামের আনাচে-কানাছে বেড়ে ওঠা বাঁশ ও গাছে গাছে সারাক্ষণ হাজার হাজার পাখিদের মিলন মেলায় মুখরিত হয়ে ওঠে গ্রামগুলো। এ কারণে অনেকেই বলছেন বানিয়াচং থানা যেন পাখির গ্রাম। ওই সীমানায় কোনো পাখি প্রবেশ করা মানে পাখিটি নিরাপদ। পাখিদের নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেন থানার প্রতিটি পাখি প্রেমিক লোক।

পাখি শিকার রোধে ওসি রাশেদ মোবারক নিয়েছেন নানা উদ্যোগ। ফলে শীতকালসহ সারা বছরই সেখানে হাজার হাজার পাখির আগমন ঘটে। বিশেষ করে বাচ্চা উঠানোর মৌসুমে সামখইল ও বকের নয়নাভিরাম এ দৃশ্য দেখতে থানা চত্ত্বরে প্রতিদিনই বিপুলসংখ্যক মানুষের আগমন ঘটে। থানায় প্রবেশের সময় দেখা যায় গাছে গাছে খেলা করছে হাজারো পাখি। যে কেউ আসলে পাখিদের নয়াভিরাম দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হবেন।

এ বিষয়ে কথা হয় পাখি প্রেমিক ওসি মোহাম্মদ রাশেদ মোবারক এর সাথে, তিনি জানান, “সহায় সম্বলহীন মানুষকে আশ্রয় দিলে ওই মানুষটি যেভাবে শান্তির পরশ পায় তদ্রুপ হাজার মাইল দূর থেকে আসা অতিথি পাখিগুলোকে আশ্রয় দিয়ে আমিও মানুষিকভাবে শান্তি পেয়েছি। আমার একটাই কথা ‘পাখি শিকার করবেন না, পাখি মারবেন না, পাখিরাও আমাদের মতো বাঁচতে চায়, পাখি আমাদের পরিবেশের পরম বন্ধু, তাদের আগলে রাখতে সমাজের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।”

বানিয়াচংবাসীও পাখি প্রেমের এমন অনন্য নজির স্থাপন করায় ওসি রাশেদ মোবারক কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

Facebook Comments
advertisement

Posted ৫:১৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com