মঙ্গলবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ধর্মপাশা ইজারাকৃত মোকশোদপুর জলমহালে জোরপুর্বক মাছ ধরার অভিযোগ

বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯     122 ভিউ
ধর্মপাশা ইজারাকৃত মোকশোদপুর জলমহালে জোরপুর্বক মাছ ধরার অভিযোগ

সাইফ উল্লাহ, সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জজের ধর্মপাশা উপজেলার মোকশোদপুর জলমহালে জোররপৃর্বক  মাছ ধরার অভিযোগ পাওয়া গেছে।  বুধবার  বিকেলে ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন উপজেলার সেলবরষ ইউনিয়নের সেলবরষ গ্রামের আব্দুল কাইয়ুমির ছেলে মোফাজ্জল চৌধুরী।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলা   ‘মোকশোদপুর দিঘর’ নামক জলমহালটি স্বারক নং ৩১.৬০.৯০৩২.০০১.০৮.০০১১২.১৯-৬০৫(৪) মোকশোদপুর মৌজা নং ১ খতিয়ানের ৬০.৪৭.৫৭ নং বিল ওখাল ৯.৫৪ একর জলাভূমি চলতি ১৪২৬  বাংলা সনের পৌষ মাস থেকে ৩০ চৈত্র পর্যন্ত চার মাসের জন্য উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা কমিটি কাজ থেকে সাব্যস্ত করে খাস কালেশনে ওই জলমহালের তীরবর্তী সেলবরষ  গ্রামের মোফাজ্জল চৌধুরীর নিকট ইজারায় পত্তন দেওয়া হয় এবং উক্ত কমিটির পক্ষ থেকে জলমহালটির দখলও তাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু মোফাজ্জল চৌধুরী ওই জলমহালটি ইজারা নেওয়ার পর থেকেই পাশের শ্বরস্বতীপুর গ্রামের আবুল কালাম সহ তার লোকজন জলমহালটি লুট করে নিয়ে যাবে বলে নূরুল ইসলামকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। এ অবস্থায় বুধবার  সকালে সন্ত্রাসী   আবুল কালামের নেতৃত্বে আলী রাজ, মহিবুর শফিকুল, গোলাম মৌলা উকিল, ছানু মিয়া, শহর আলীসহ শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ওই জলমহালের (খলা) ঘরে গিয়ে হামলা চালিয়ে সব কিছু ভেঙে তছনচ করে দেয়। এ সময় সন্ত্রাসীরা (খলা) ঘরের বাঁশ, কাঠ,  টিন, মাছ ধরার সরঞ্জামাদিসহ প্রায় কয়েক লাখ টাকার মালামাল লুট করে ।

ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমান অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১১:৪৫ অপরাহ্ণ | বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com