সোমবার ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

তাহিরপুর রক্তি নদীর উপড়ে নির্মিত সেতুর নিচ দিয়ে বড় নৌযান চলাচলে সরকারী নিষেধাজ্ঞা

ঝুকিতে আনোয়ারপুর সেতু

মঙ্গলবার, ০৬ জুলাই ২০২১     44 ভিউ
ঝুকিতে আনোয়ারপুর সেতু

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার জনগুরুত্বপুর্ন বালিজুরি ইউনিয়নের আনোয়ারপুর বাজারের পাশে নির্মিত তাহিরপুর উপজেলা হতে সড়ক পথে সুনামগঞ্জ যাওয়ার পথে আনোয়ারপুর বাজার সংলগ্ন রক্তি নদীর উপড় সংযুগ স্থাপন কারী ১২৫ মিটার দৈর্ঘ এ সেতুটি ২০১১ সালের অক্টোবর মাসে যানবাহন চলাচলের জন্য আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন।

আনোয়ারপুর সেতুটি চালু হওয়ায় সুনামগঞ্জের সাথে তাহিরপুর উপজেলার সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপিত হয়। এতে করে তাহিরপুর ছাড়াও ধর্মপাশা, বিশম্ভরপুর, জামালগঞ্জ ও নেত্রকোণার জেলার একাংশের বাসিন্দারা সহজে সুনামগঞ্জে যাতায়াত করতে পারেন।

সম্প্রতি সেতুটির নীচ দিয়ে প্রতিদিন শতাধিক বড় নৌযান (বাল্কহেড) চলাচল করে থাকে। একটি বাল্কহেডে ২০ হাজার ফুট পর্যন্ত পাথর/বালু পরিবহন করা হয়। বড় নৌযান সেতুর নীচ দিয়ে যাতায়াত কালে সেতুর খুঁটিতে ধাক্কা লাগে। এতে করে ঝুঁকিতে পড়েছে সেতুটি। এ সকল বাল্কহেড সেতুটির ৫ কিলোমিটার উত্তরে উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের যাদুকাটা নদীর লাউড়ের গড় এলাকা থেকে বালু/পাথর পরিবহন করে থাকে।

সম্প্রতি উপজেলার বালিজুরী ইউনিয়নের বাসিন্দা ফেরদৌস আলম গত ২৮ জুন এ বিষয়ে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছে একটি আবেদন করেছেন। আবেদনে তিনি বলেছেন, বাল্কহেড নৌকা বালু পাথর বোঝাই করে সেতুটির নীচ দিয়ে চলাচলের সময় সেতুর খুঁটিতে ধাক্কা লাগে। বাল্কহেডের ধাক্কায় প্রতিদিন সেতুটির খুঁটি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। এ সকল বড় নৌযানের আঘাতে যেকোনো সময় সেতুর খুঁটি ভেঙে যেতে পারে। তিনি সেতুর নীচ দিয়ে বড় মালবাহী নৌযান (বাল্কহেড) চলাচল বন্ধের দাবি জানিয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদস সদস্য মো. একরামুল হুদা জানান, সেতুর খুঁটিতে ধাক্কা লেগে একাধিক বাল্কহেড ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এসব ধাক্কায় খুঁটিতে স্থাপিত লোহার পাত ভেঙে পড়েছে। বাল্কহেডের ধাক্কায় যেকোনো সময় সেতুর খুঁটি ভেঙে বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই সেতুর নীচ দিয়ে বাল্কহেড চলাচল বন্ধের জন্য তারা মানববন্ধনও করেছেন।

এবিষয়ে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রায়হান কবীর বলেন বিশেষজ্ঞদের পরামশে এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের নির্দেশে উপজেলার রক্তি নদীর নির্মিত আনোয়াপুর সেতুটি সংরক্ষনের স্বার্থে সেতুর কাটামোর সাথে সংঘর্ষ হতে পারে এরকম নৌযান চলাচলের উপড় পরবতী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিষোধাজ্ঞা প্রধান করা হয়েছে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৭:২৭ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৬ জুলাই ২০২১

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com