রবিবার ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহের লক্ষ্যে বানিয়াচঙ্গে উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে কৃষক বাচাই

রবিবার, ১০ মে ২০২০     47 ভিউ
কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহের লক্ষ্যে বানিয়াচঙ্গে উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে কৃষক বাচাই

মখলিছ মিয়া, বানিয়াচং: বানিয়াচং উপজেলায় চলতি বছর সরকারীভাবে বোরো ধান ক্রয় করা হবে ৪ হাজার ৭শ ১৬ মেট্রিকটন ধান।ইতিমধ্যে উপজেলা কৃষি অফিসের মাধ্যমে ১৬ হাজার ১শ ৬০জস কৃষকের তালিকা প্রস্তুত করা হয়। শতভাগ স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান ক্রয় করার লক্ষ্যে ১০মে উপজেলা পরিষদ মাঠে উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে কৃষক বাছাই করা হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ-২(বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ খান। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মামুন খন্দকার’র সভাপতিত্বে উন্মুক্ত লটারী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী, বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ এমরান হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ফারুক আমিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা আক্তার, কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ দুলাল উদ্দিন।

অনুষ্ঠানটির সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা মোঃ খবির উদ্দিন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুল মজিদ খান বলেন, শতভাগ স্বচ্ছতার লক্ষ্যে গত বছর আমরা উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন করে তাদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করি, এরই ধারাবাহিকতায় এবছরও আমরা উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে কৃষক বাছাই এর আয়োজন করেছি, তবে এবছর শুধু ইউনিয়ন পর্যন্ত সীমাবদ্ধ না রেখে আমরা এটাকে ওয়ার্ড পর্যন্ত নিয়ে আসছি, এবছর প্রতিটি ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে আলাদা আলাদাভাবে এ লটারী অনুষ্ঠিত হচ্ছে, যাতে করে একেবারে প্রান্তিক পর্য্যায়ের কৃষকগণও যেন এ তালিকা থেকে বাদ না পড়ে।

তিনি আরো বলেন, আমরা চাই লটারীর মাধ্যমে নির্বাচিত কৃষক নিজে গিয়ে তার ধান খাদ্য গুদামে দিয়ে আসবে। যথাযথ প্রক্রিয়ার ধান দেয়ার পরও যদি কোন কৃষক হয়রানীর শিকার হয় সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোন অবস্থায়ই যেন কৃষক প্রতারিত না হয় সে ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখতে উপজেলা খাদ্য সংগ্রহ কমিটির নেতৃবৃন্দকে নির্দেশ প্রদান করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী বলেন, আপনাদের একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমি স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই, ধান সংগ্রহের বিষয়ে আমাদের পক্ষ থেকে নূন্যতম কাউকে ছাড় দেয়া হবে না, কেবলমাত্র লটারীর মাধ্যমে নির্বাচিত কৃষকগন স্বশরীলে উপস্থিত হয়ে তাদের ধান খাদ্য গুদামে দিয়ে আসবেন, ধান সংগ্রহের বিষয়ে কোন অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে মাননীয় এমপি মহোদয়ের নির্দেশ মোতাবেক তা কঠোর হস্তে দমন করা হবে। শতভাগ স্বচ্ছ প্রক্রিয়া এবার কৃষকদের কাছ থেকে ধান নেয়া হবে, এলক্ষ্যে আমাদের সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে ইউএনও মামুন খন্দকার বলেন, লটারীর মাধ্যমে নির্বাচিত কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয়ের লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা থাকবে, কোন অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে প্রয়োজন বোধে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোন কৃষকযেন ধান দিতে গিয়ে হয়রানীর শিকার না হয় এ বিষয়টি কঠোরভাবে মনিটরিং করা হবে।

উল্লেখ্য, এবছর সরকারীভাবে উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের ২ হাজার ৫শ ৬জন কৃষকদের কাছ থেকে ৪ হাজার ৭শ ১৬ মেট্টিকটন ধান ক্রয় করা হবে। আগামী ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত কৃষক খাদ্য গুদামে ধান দিতে পারবে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৮:২৭ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১০ মে ২০২০

Sylheter Janapad |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
গোবিন্দ লাল রায় সুমন
প্রধান কার্যালয়
আখরা মার্কেট (২য় তলা) হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন
+88 01618 320 606
+88 01719 149 849
Email
sjanapad@gmail.com